আজ ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:
বিআরটিসি’র বিরুদ্ধে বিভিন্ন ফেসবুক আইডি থেকে অপতৎপরতাকারীদের বিরুদ্ধে সাইবার আদালতে মামলা। চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে ঘুরে দাঁড়ালো বিআরটিসি। এডভোকেট সোহানা তাহমিনার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা উচ্চ আদালতে। মুন্সিগঞ্জ-২ আসনে ট্রাক প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করবেন এড, সোহানা তাহমিনা। লৌহজংয়ে নানা আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত। মুন্সীগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ও বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী পালিত হল মহান বিজয় দিবস। লৌহজং উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে বিজয় দিবস উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী মেলার আয়োজন। লৌহজংয়ে আদালতের রায় অমান্য করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, মানবেতর জীবন-যাপন ভুক্তভোগী পরিবার। লৌহজংয়ে ভাওতা দিয়ে লবণের বিনিময়ে সর্বস্ব লুট! লৌহজংয়ে ৫ জয়িতার সম্মাননা লাভ।
||
  • Update Time : ডিসেম্বর, ২১, ২০২১, ৬:৫৩ পূর্বাহ্ণ

সমরেশের চোখ পড়তেই কপাল খুলে যায় শ্রীলেখার

ঢাকা : বর্তমান সময়ের কলকাতার চলচ্চিত্র ও ধারাবাহিকে খুবই জনপ্রিয় নাম শ্রীলেখা মিত্র।যদিও সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন তিনি নানা কারণে আলোচিত বা সমালোচিত।যে শ্রীলেখা ঝলমলে রঙিন দুনিয়ায় বিচরণ করছেন  দুনিয়া হয়তো এই জগতে তাঁর পা রাখার কথাই ছিল না। বিএ পাশ করার মাত্রই তাজ হোটেলে চাকরিতে ঢুকেছিলেন। আকস্মিক এক ঘটনায় শ্রীলেখা ক্যামেরার সামনে দাঁড়ানোর সুযোগ পান এবং নিজেকে প্রমাণ করতে সক্ষম হন।

পশ্চিমবঙ্গের বিখ্যাত লেখক সমরেশ মজুমদার কয়েকজনকে সাথে নিয়ে ‘টেলিফ্রেম’ নামে একটি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান খুলেছেন। একের পর এক নাটক ও ধারাবাহিক বানিয়ে দারুণ জমিয়ে ফেলেছেন। সে সময় তাঁরই চিত্রনাট্যে একটি ধারাবাহিক নাটক বানানোর পরিকল্পনা হয় রঞ্জিত মল্লিককে কেন্দ্র করে। শ্রীলেখার নাটকীয়ভাবে অভিনয় জগতে প্রবেশের গল্পটি লিখেছেন ‘আলোকিত অন্ধকার’ নামে গ্রন্থে।

সমরেশ লিখেছেন, “ধারাবাহিকের নাম ‘বালিকার প্রেম।’  মা হারানো মেয়ে বাবাকেই ধ্যান জ্ঞানে পৃথিবী মনে করে। মেয়ে বড় হলেও বাবার কাছে সে বালিকামাত্র। সেই মেয়ে কলেজে পা দিতেই একটি তরুণ এল তাঁর জীবনে। এই টানাপোড়েনেই নাটক এগিয়ে যাবে। রঞ্জিতের মেয়ের চরিত্রটিতে ভালো অভিনেত্রীর প্রয়োজন। সমস্যা হলো তার বয়স বেশি হওয়া চলবে না। সেসময় ওই বয়সের অভিনেত্রী ইন্ডসস্ট্রিতে ছিল না। অথবা কেউ থাকলেও উল্লেখযোগ্য নয়। আমরা চারপাশে খোঁজ করতে লাগলাম। তখন পনের ষোলো বছরের মেয়ে পড়াশোনার ক্ষতি করে অভিনয় করবে তা অভিভাবেরা চাইতেন না।

এই সময় একজন পরিচিত ভদ্রলোকের সূত্রে যে মেয়েটি অফিসে এল, সে প্রায় ওই বয়সী। থাকে বিরাটিতে৷ জিজ্ঞাসা করে জানলাম সে ইতিমধ্যে বিএ পাশ করেছে। খাটো চেহারায় চোখে মুখে সারল্য থাকায় বয়স বোঝা যায়নি। সে এসেছিল শাড়ি পরে। অভিনয় করতে হবে স্কার্ট পরে। সেটা জানানোর সঙ্গেসঙ্গে মেয়েটি বেরিয়ে গেল। ঘণ্টাখানেক পরে ফিরে এল স্কার্ট পরে।চমৎকার দেখাচ্ছিল তাকে৷ সংলাপ বলিয়ে ওই মেয়েটিকে চরিত্রে নেওয়া হলো। আমাদের দুর্ভাগ্য নানান কারণে  ধারাবাহিকটি শেষ করা সম্ভব হয়নি। কিন্তু মেয়েটির অভিনয়ের খ্যাতি স্টুডিও থেকে ছড়িয়ে গিয়েছিল। পরে সে অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পেরেছে। মেয়েটির নাম শ্রীলেখা মিত্র।

সমরেশ মজুমদারের হাত ধরে পশ্চিমবঙ্গের টেলিভিশন ও চলচ্চিত্র জগতে আরো অনেক খ্যাতনামা অভিনেতা-অভিনেত্রী উঠে এসেছেন। পাঠকদের সামনে সে গল্প তুলে ধরা হবে মাঝে মধ্যেই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন