আজ ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:
বিআরটিসি’র বিরুদ্ধে বিভিন্ন ফেসবুক আইডি থেকে অপতৎপরতাকারীদের বিরুদ্ধে সাইবার আদালতে মামলা। চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে ঘুরে দাঁড়ালো বিআরটিসি। এডভোকেট সোহানা তাহমিনার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা উচ্চ আদালতে। মুন্সিগঞ্জ-২ আসনে ট্রাক প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করবেন এড, সোহানা তাহমিনা। লৌহজংয়ে নানা আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত। মুন্সীগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ও বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী পালিত হল মহান বিজয় দিবস। লৌহজং উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে বিজয় দিবস উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী মেলার আয়োজন। লৌহজংয়ে আদালতের রায় অমান্য করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, মানবেতর জীবন-যাপন ভুক্তভোগী পরিবার। লৌহজংয়ে ভাওতা দিয়ে লবণের বিনিময়ে সর্বস্ব লুট! লৌহজংয়ে ৫ জয়িতার সম্মাননা লাভ।
||
  • Update Time : আগস্ট, ৪, ২০২৩, ৪:৩২ অপরাহ্ণ

শার্শার গয়ড়ায় পাখিদের আশ্রয়ের কৃত্রিম পাখির বাসা টানানো অনুষ্ঠিত হয়েছে!

নিজস্ব প্রতিনিধি : যশোরের শার্শার গয়ড়ায়,পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় ও পাখিদের নিরাপদ আশ্রয়ের এবং অস্তিত্ব রক্ষার এলাকার গাছে গাছে কৃত্রিম পাখির বাসা টানানো অনুষ্ঠিত হয়েছে।

৪ ই আগস্ট শুক্রবার বিকাল ৪.০০ ঘটিকা সময়ের দিকে, যশোরের শার্শা উপজেলাধীন গয়ড়া মেহেরুল্লা হাবিব দাখিল মাদ্রাসায়,”মা আমেনা স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন দল, গয়ড়া’র আয়োজনে, উক্ত পাখিদের নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য এলাকার গাছে গাছে কৃত্রিম পাখির বাসা টানানো অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এলাকার বিশিষ্ট সমাজ সেবক জনাব হাবিবুর রহমান হাবিব।
এছাড়াও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ৪নং বেনাপোল ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) এর সদস্য জনাব মোঃ মনির হোসেন মিন্টু সহ গয়ড়া মেহেরুন্না হাবিব দাখিল মাদ্রাসা কমিটির সভাপতি মোঃ কামাল হোসেন, বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোঃ আঃ গফুর, তরুণ সমাজ সেবক জনাব সিমলা বিশ্বাস।

অনুষ্ঠান সভাপতিত্ব করেন, দেশসেরা উদ্ভাবক ও বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোঃ মিজানুর রহমান।এছাড়াও অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন, বিশিষ্ট সমাজ সেবক ও সাদা মনের মানুষ মোঃ সাহেদ আলী, এবং উদ্যোক্তা হিসেবে ছিলেন, জনাব তরুণ সমাজ সেবক ও শার্শা দাখিল মাদ্রাসা শিক্ষক মোঃ আবুল হোসেন (বাবু)। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন গন মাধ্যমের কর্মী ও আগামীর ভবিষ্যত প্রজন্ম স্কুল-মাদ্রাসা পড়ুয়া ছোট ছোট ছাত্ররা।

এসময় আলোচনায় বক্তব্যে অতিথিগণ বলেন, আগের মত আর পাখিদের কিচিরমিচির শব্দ শোনা যায় না। আমরা বিভিন্ন কারণে পাখিদের আশ্রয়স্থলগুলো ধ্বংস করে, পাখিদের মেরে ফেলছি, এই পাখিরা আমাদের উপকার করে। বিভিন্ন ধরনের বিষাক্ত কীটপতঙ্গ ও পোকামাকড় খেয়ে আমাদের ফসল রক্ষা করা সহ পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। অথচ আমরা এই পাখিদের অস্তিত্ব ধ্বংসের পথে ঠেলে দিচ্ছি। তাই পরিবেশ রক্ষায় আমরা পাখির এই কৃত্রিম পাখির বাসা গাছে গাছে বেঁধে দিয়ে, পাখিদের আবাসস্থলের সুযোগ সৃষ্টি করে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছে। এছাড়াও বলেন, মানুষদেরকে সচেতনা করার মধ্য দিয়ে আগামীতে আরো বিভিন্ন ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করবো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন