আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:
বিআরটিসি’র বিরুদ্ধে বিভিন্ন ফেসবুক আইডি থেকে অপতৎপরতাকারীদের বিরুদ্ধে সাইবার আদালতে মামলা। চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে ঘুরে দাঁড়ালো বিআরটিসি। এডভোকেট সোহানা তাহমিনার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা উচ্চ আদালতে। মুন্সিগঞ্জ-২ আসনে ট্রাক প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করবেন এড, সোহানা তাহমিনা। লৌহজংয়ে নানা আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত। মুন্সীগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ও বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী পালিত হল মহান বিজয় দিবস। লৌহজং উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে বিজয় দিবস উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী মেলার আয়োজন। লৌহজংয়ে আদালতের রায় অমান্য করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, মানবেতর জীবন-যাপন ভুক্তভোগী পরিবার। লৌহজংয়ে ভাওতা দিয়ে লবণের বিনিময়ে সর্বস্ব লুট! লৌহজংয়ে ৫ জয়িতার সম্মাননা লাভ।
||
  • Update Time : আগস্ট, ৭, ২০২৩, ৫:৩০ অপরাহ্ণ

মুন্সীগঞ্জে দুইটি উপজেলা কে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণার নিমিত্তে প্রেস ব্রিফিং!

শাহনাজ বেগম : মুজিব বর্ষ উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবারকে চতুর্থ পর্যায়ে দ্বিতীয় ধাপে জমি ও গৃহপ্রদান এবং দুইটি উপজেলা কে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত ঘোষণার নিমিত্তে প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সোমবার (৭ আগস্ট) মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে সম্মেলন কক্ষে বেলা ১২ টায় জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এই প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মুন্সিগঞ্জ জেলা প্রশাসক জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ আবু জাফর রিপন প্রেস ব্রিফিং এ জানান, সারাদেশের গৃহহীন ভূমিহীন মানুষকে পুনর্বাসনের লক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের তত্ত্বাবধানে শুরু করা আশ্রয়ন – ২ প্রকল্পের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য অনুযায়ী ভূমিহীন গৃহহীন ছিন্নমূল অসহায় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর প্রকল্পের আওতায় দরিদ্র জনগোষ্ঠীর পুনর্বাসনের লক্ষ্যে ” বাংলাদেশের একজন মানুষও গৃহহীন থাকবে না ” প্রধানমন্ত্রীর এই নির্দেশনা বাস্তবায়নে আশ্রয়ন ২ প্রকল্পের মাধ্যমে দেশের সকল ভূমিহীন ও গৃহহীন মানুষের বাসস্থান নিশ্চিত কল্পে সেমি পাকা একক গৃহনির্মাণের প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে।

দেশের সকল ভূমিহীন ও মানুষকে দুই শতক জমি সহ সেমি পাকা ঘর দেওয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।মুন্সিগঞ্জ জেলার ‘ ক ‘ তালিকার ভূমিহীন রয়েছে ১৩৫৩টি।এদের মধ্যে প্রথম পর্যায়ে ৫০৮ টি, ২য় পর্যায়ে ৩২৫টি, ৩য় পর্যায়ে ৭২ টি পরিবারের জন্য ঘর নির্মাণ শেষে হস্তান্তর করা হয়েছে এবং চতুর্থ পর্যায়ে ২৮২ টি পরিবারের অনুকূলে জমি প্রদান কার্যক্রম চলছে।

বর্তমানে উদ্বোধন যোগ্য ঘরের সংখ্যা ৭০ টি। মুন্সিগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান উপজেলায় ৩৪ টি শ্রীনগর উপজেলা ২১ টি এবং লৌহজং উপজেলায় ১৫ টি। গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আগামী ৯ আগস্ট ২০২৩ তারিখে মুন্সিগঞ্জ জেলার ভূমিহীন ও গৃহ হীন পরিবারের জন্য বরাদ্দকৃত এই ৭০ টি ঘরের শুভ উদ্বোধন করবেন এবং টঙ্গীবাড়ি ও শ্রীনগর উপজেলা ভূমিহীন ও গৃহহীনমুক্ত উপজেলা হিসেবে ঘোষণা করবেন।

চতুর্থ পর্যায়ের প্রথম ধাপে ২১২টি ঘর উদ্বোধন করা হয়েছে এবং মুন্সিগঞ্জ সদর এবং গজারিয়া কে ভূমিহীন ও গৃহহীন মুক্ত উপজেলা হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে তবে প্রাকৃতিক বা অন্য কোন বিশেষ কারণে অন্য কোন ব্যক্তি ভূমিহীন হলে তাদেরকে দ্রুততার সাথে পুনর্বাসনের আওতায় আনা হবে বলেও জানানো হয়েছে প্রেস ব্রিফিংয়ে।

এই প্রকল্পের আওতায় স্বামী-স্ত্রী যৌথ মালিকানায় বিনামূল্যে সংযোগ ও পানির সুবিধা সহ জমি এবং সেমি পাকা ঘরের মালিক হচ্ছেন এবং একই সাথে তাদের স্বাবলম্বী করতে ক্ষুদ্রঋণের সুবিধাও প্রদান করা হচ্ছে।
প্রেস ব্রিফিংয়ে আরো উপস্থিত ছিলেন প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা  ও সাংবাদিকবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন