আজ ২৯শে জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১২ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:
বিআরটিসি’র বিরুদ্ধে বিভিন্ন ফেসবুক আইডি থেকে অপতৎপরতাকারীদের বিরুদ্ধে সাইবার আদালতে মামলা। চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে ঘুরে দাঁড়ালো বিআরটিসি। এডভোকেট সোহানা তাহমিনার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা উচ্চ আদালতে। মুন্সিগঞ্জ-২ আসনে ট্রাক প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করবেন এড, সোহানা তাহমিনা। লৌহজংয়ে নানা আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত। মুন্সীগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ও বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী পালিত হল মহান বিজয় দিবস। লৌহজং উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে বিজয় দিবস উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী মেলার আয়োজন। লৌহজংয়ে আদালতের রায় অমান্য করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, মানবেতর জীবন-যাপন ভুক্তভোগী পরিবার। লৌহজংয়ে ভাওতা দিয়ে লবণের বিনিময়ে সর্বস্ব লুট! লৌহজংয়ে ৫ জয়িতার সম্মাননা লাভ।
||
  • Update Time : অক্টোবর, ৮, ২০২১, ৭:৩৪ পূর্বাহ্ণ

বাগেরহাটের ৯ উপজেলায় ৩ হাজার ২০২ জন শিক্ষার্থীর বাল্যবিয়ের শিকার

বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ বাল্যবিয়ে মুক্ত বাগেরহাট জেলায় করোনাকালে আশংকা জনক হারে বেড়েছে বাল্যবিয়ে। জেলা প্রশাসনের দেয়া তথ্যে শুধু সরকারি হিসেবে জেলায় ৯টি উপজেলায় ৩ হাজার ২০২ জন শিক্ষার্থী বাল্য বিয়ের শিকার হয়েছে। বেশি বাল্যবিয়ে হয়েছে কচুয়া উপজেলায় এর পরের অবস্থানে রয়েছে বাগেরহাট সদর উপজেলা।

নাগরিক সমাজ বলছে বাল্যবিয়ে এসডিজি বাস্তবায়নে বাঁধা হয়ে দাঁড়াতে পারে। আর জেলা প্রশাসন বলছে, তথ্য সংগ্রহ করে বাল্যবিয়ের সাথে জড়িত সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বাগেরহাটের বাল্যবিয়ে বেশী হওয়া উপজেলা কচুয়ার শহীদ আসাদ স্মৃতি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এসএসসি পরিক্ষার্থী তানিয়া আক্তার। বিজ্ঞান বিভাগের তার রোল নম্বর এক। পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণিতে বৃত্তি পাওয়া এই মেধাবী শিক্ষার্থী স্বপ্ন ছিল লেখাপড়া করে ডাক্তার হওয়ার। তানিয়ার এই স্বপ্নের অপমৃত্যু হয়েছে। করোনাকালে বাল্যবিয়ের স্বীকার হয়েছে তানিয়া। তানিয়া এখন শ্বশুর বাড়ীতে ঘর-সংসার করছে। এমনই অবস্থা জেলার অন্য সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বল্যবিয়ের শিকার হওয়া মেয়ে শিশুদের। শহীদ আসাদ স্মৃতি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২৫ জন, গজালিয়া রহমানিয়া দাখিল মাদ্রসার ৫৫ জন ও বাগেরহাট শহরের জাহানাবাদ বালিকা বিদ্যালয়ের ১৮ শিক্ষার্থী করোনার দেড় বছরে বাল্যবিয়ের শিকার হয়েছে। এসব স্কুল খুললেও অনেক শিক্ষার্থী বাল্যবিয়ের শিকার হয়ে স্কুলে না আসায় প্রাণ ফেরেনি ক্লাসে।

করোনায় আর্থিক অনটন, সামাজিক নিরাপত্তার অভাব ও অভীভাবকদের সচেতনার অভাবে জেলার মাধ্যমিক স্তরের ৫২২ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৩ হাজার ২০২ জন ছাত্রী বাল্যবিয়ের শিকার। তারা এখন আর ক্লাশে আসছে না। বাল্যবিয়ের পর স্বামীর নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে অনেকে সংসার করতে না পেরে ফিরে এসেছে বাবার বাড়িতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন