আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:
বিআরটিসি’র বিরুদ্ধে বিভিন্ন ফেসবুক আইডি থেকে অপতৎপরতাকারীদের বিরুদ্ধে সাইবার আদালতে মামলা। চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে ঘুরে দাঁড়ালো বিআরটিসি। এডভোকেট সোহানা তাহমিনার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা উচ্চ আদালতে। মুন্সিগঞ্জ-২ আসনে ট্রাক প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করবেন এড, সোহানা তাহমিনা। লৌহজংয়ে নানা আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত। মুন্সীগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ও বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী পালিত হল মহান বিজয় দিবস। লৌহজং উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে বিজয় দিবস উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী মেলার আয়োজন। লৌহজংয়ে আদালতের রায় অমান্য করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, মানবেতর জীবন-যাপন ভুক্তভোগী পরিবার। লৌহজংয়ে ভাওতা দিয়ে লবণের বিনিময়ে সর্বস্ব লুট! লৌহজংয়ে ৫ জয়িতার সম্মাননা লাভ।
||
  • Update Time : অক্টোবর, ১৭, ২০২৩, ৯:০৫ পূর্বাহ্ণ

প্রধানমন্ত্রী আগামী ১৯ অক্টোবর উদ্বোধন করবেন ময়মনসিংহ বিআরটিসি বাস ডিপো ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র 

এম শিমুল খানঃ ময়মনসিংহ অঞ্চলের নাগরিকদের সাশ্রয়ী ভাড়ায়, দ্রুত, আরামপ্রদ, আধুনিক ও নিরাপদ সড়ক পরিবহন ও যাতায়াত ব্যবস্থার উন্নয়নের লক্ষ্যে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন সংস্থা বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন (বিআরটিসি) ময়মনসিংহ বাস ডিপো ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র স্থাপন করেছে।

পর্যায়ক্রমে বিআরটিসিএর বহরে আধুনিক গাড়ি সংযোজন, গাড়ি রক্ষণাবেক্ষণ, যাত্রী সেবা নিশ্চিতকরণ ও মানব সম্পদ উন্নয়নের মাধ্যমে জনগণের প্রত্যাশিত আর্থসামাজিক উন্নয়ন সাধনে কাজ করছে। প্রতি বছর বিআরটিসি ময়মনসিংহ বাস ডিপো ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্র থেকে তিন হাজার প্রশিক্ষিত দক্ষ চালক তৈরি করবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন বিআরটিসি’র চেয়ারম্যান মোঃ তাজুল ইসলাম (অতিরিক্ত সচিব)।

বিআরটিসি ময়মনসিংহ বাস ডিপো ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ম্যানেজার মোঃ জাফর আহমেদ জানান, ময়মনসিংহ অঞ্চলের নাগরিকদের রাষ্ট্রীয় মালিকাধীন বিআরটিসি’র সেবা দেয়ার জন্য ২০১৮ সালের ২ নভেম্বর ময়মনসিংহ বাস ডিপো ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রটির ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । ময়মনসিংহ নগরীর শম্ভুগঞ্জ পীরবাড়ি সংলগ্ন ব্রহ্মপূত্র নদের তীরে ২ একর ১০ শতাংশ জমির উপর মনোরম লোকেশনে ডিপোটি গড়ে তোলা হয়েছে।

ডিপো নির্মাণ কাজে প্রথমে শ্লথ গতি থাকলেও বর্তমান বিআরটিসি’র চেয়ারম্যান মোঃ তাজুল ইসলাম দায়িত্ব নেয়ার পর তার নির্দেশে এবং প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধায়নে দ্রুত সময়ের মধ্যেই নির্মাণকাজ সম্পন্ন হয়।

ডিপোতে একটি দুতলা ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। এতে নীচতলায় ইউনিট প্রধানের কার্যালয়, প্রশাসন শাখা, হিসাব শাখা, ট্রাফিক শাখা, কারিগরি শাখা, ওয়াসরুম, কিচেন রুম এবং দ্বিতীয় তলয় ১২০ জন প্রশিক্ষণার্থীর আসন সম্বলিত দুটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত মাল্টিমিডিয়া প্রশিক্ষণ। রুম ও প্রশিক্ষণ অফিস স্থাপন করা হয়েছে। সকাল বিকেল দুটি শিফটে প্রশিক্ষণ দেয়া হলে দুটি ব্যাচে এক সাথে ৫০০জনের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা বিদ্যমান রয়েছে।

ডিপোর চারদিকের দেয়ালে কাঁটাতারের বেড়াসহ সীমানা প্রাচীর দ্বারা বেষ্টিত করা হয়েছে। সার্বিক নিরাপত্তার জন্য সমগ্র ডিপোকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হয়েছে। ডিপোতে বর্তমানে ২৯টি বাস চালু রয়েছে এবং ৫টি প্রশিক্ষণ কার দ্বারা সেবা প্রদান করা হচ্ছে।

বাসগুলো ময়মনসিংহ ভোলাগঞ্জ, ঘাটাইল মৌলভীবাজার, কিশোরগঞ্জ ঢাকা, নকলা ঢাকা, ময়মনসিংহ নান্দাইল, ময়মনসিংহ হালুয়াঘাট রুটে গণপরিবহন হিসেবে এবং ত্রিশালে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থী বাস হিসেবে সেবা প্রদান করছে।

এই ডিপোতে স্থায়ী জনবল ৫৭জন এবং দৈনিক মজুরি ভিত্তিক ১২ দায়িত্ব পালন করছেন। ময়মনসিংহ বাস ডিপো ও প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের মাধ্যমে নিরাপদ, উন্নত, আরামদায়ক ও আধুনিক যাত্রী পরিবহন সেবা নিশ্চিত করার মাধ্যমে সুশৃঙ্খল পরিবহন ব্যবস্থা গড়ে তোলা সম্ভব হবে। সেইসাথে মোটর ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের মাধ্যমে অত্র অঞ্চলের বেকার যুব সমাজকে স্বাবলম্বী করে তোলার মাধ্যমে দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে। সর্বপরি বৃহত্তর ময়মনসিংহ অঞ্চলে পরিবহন খাতের রোল মডেল হিসেবে গড়ে তোলা সম্ভব হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন