আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:
বিআরটিসি’র বিরুদ্ধে বিভিন্ন ফেসবুক আইডি থেকে অপতৎপরতাকারীদের বিরুদ্ধে সাইবার আদালতে মামলা। চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে ঘুরে দাঁড়ালো বিআরটিসি। এডভোকেট সোহানা তাহমিনার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা উচ্চ আদালতে। মুন্সিগঞ্জ-২ আসনে ট্রাক প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করবেন এড, সোহানা তাহমিনা। লৌহজংয়ে নানা আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত। মুন্সীগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ও বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী পালিত হল মহান বিজয় দিবস। লৌহজং উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে বিজয় দিবস উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী মেলার আয়োজন। লৌহজংয়ে আদালতের রায় অমান্য করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, মানবেতর জীবন-যাপন ভুক্তভোগী পরিবার। লৌহজংয়ে ভাওতা দিয়ে লবণের বিনিময়ে সর্বস্ব লুট! লৌহজংয়ে ৫ জয়িতার সম্মাননা লাভ।
||
  • Update Time : সেপ্টেম্বর, ১৬, ২০২৩, ৫:৪৪ অপরাহ্ণ

পাইকগাছায় জমির বিরোধে হামলা-ভাংচুরের অভিযোগ: আহত -১!

মোঃ মানছুর রহমান জাহিদঃ খুলনার পাইকগাছায় ১৪৪ ধারার মামলায় পুলিশের নির্দেশনা উপেক্ষা করে অতর্কিত হামলায় আবু সাঈদ (৫০) নামে এক ব্যক্তি আহত ও নির্মানাধীন পাঁকা সীমানা প্রাচীর ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

১৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে উপজেলার কপিলমুনি ইউনিয়নের শ্যামনগর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটেছে। উক্ত ঘটনায় পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। আহত আবু সাঈদকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা গেছে , জমির বিরোধে এ হামলা ও ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে।আহত আবু সাঈদ জানান, বিআরএস জরিপে ১৬/১ ও ২৩৬ খতিয়ান ভুক্ত ৬৫৭ দাগে ভিটেবাড়ীসহ ৫৬ একর জমি দীর্ঘকাল আমার দখলে। কিন্তু এ জমি নিয়ে শ্যামনগর গ্রামের গফুর মল্লিক পরিবারের সাথে বিরোধ দেখা দিলে নির্বাহী কোর্টে তাদের বিরুদ্ধে এমআর-৩৮৯/২৩ মামলা করি। আদালতের নির্দেশনা মানতে পুলিশ দখলভিত্তিক স্থিতিবস্থার নির্দেশ দেন।

আবু সাঈদের মেয়ে ও বৃদ্ধা মা সোখিনা বিবি অভিযোগ করেন, শনিবার দুপুরে হঠাৎ করে গোলাম মল্লিকের ছেলে গফুর মল্লিক, শাহাজান, গফুর মল্লিকের ছেলে রিপন মল্লিকসহ ১০/১২ জন হামলা চালিয়ে আমার পাঁচালি ভাংচুর করে। এ সময় সাঈদ বাঁধা দিলে তারা মারপিট করে রক্তাক্ত জখম করে ও মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে চলে যায়।

পাইকগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান, সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি।এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন