আজ ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:
বিআরটিসি’র বিরুদ্ধে বিভিন্ন ফেসবুক আইডি থেকে অপতৎপরতাকারীদের বিরুদ্ধে সাইবার আদালতে মামলা। চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে ঘুরে দাঁড়ালো বিআরটিসি। এডভোকেট সোহানা তাহমিনার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা উচ্চ আদালতে। মুন্সিগঞ্জ-২ আসনে ট্রাক প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করবেন এড, সোহানা তাহমিনা। লৌহজংয়ে নানা আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত। মুন্সীগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ও বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী পালিত হল মহান বিজয় দিবস। লৌহজং উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে বিজয় দিবস উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী মেলার আয়োজন। লৌহজংয়ে আদালতের রায় অমান্য করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, মানবেতর জীবন-যাপন ভুক্তভোগী পরিবার। লৌহজংয়ে ভাওতা দিয়ে লবণের বিনিময়ে সর্বস্ব লুট! লৌহজংয়ে ৫ জয়িতার সম্মাননা লাভ।
||
  • Update Time : আগস্ট, ২০, ২০২৩, ৩:৪২ অপরাহ্ণ

পানি প্রবাহে বাঁধা — পাইকগাছার উলুবুনিয়া নদীতে চায়না দুয়ারী জালের ছড়াছড়ি!

মোঃ মানছুর রহমান জাহিদঃ  পাইকগাছায় ভরা বর্ষা মৌসুমে উলুবুনিয়া নদীতে চায়না দুয়ারী বা চায়না জাল ব্যবহার করে মাছ শিকারে ব্যস্ত কিছু অসাধু মৎস্য ব্যবসায়ীরা। এতে বিভিন্ন মাছ বিপন্ন হওয়ার পাশাপাশি ক্ষতির মুখে পড়ছে জলজ উদ্ভিদ ও জীববৈচিত্র্য। উলুবুনিয়া নদীর প্রায় দুই কিলোমিটার এলাকাজুড়ে অবৈধ জাল দিয়ে চলেছে এমন মাছ শিকারের মহোৎসব।

সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার লতা ইউনিয়নের শামুক পোতা বাজারের অদুরে উলুবুনিয়া নদীতে চায়না জাল পেতে রাখা হয়েছে। বিভিন্নস্থানে জাল পেতে ধরা হচ্ছে বিভিন্ন প্রজাতির ছোট-বড় সব ধরনের মাছ।
সরকার গত দুই বছর আগে ৩০লাখ টাকা ব্যয়ে
মরা উলুবুনিয়া নদী খনন করে জনসাধারনের জন্য উন্মুক্ত ঘোষনা করে। সেখানে সরকারি ভাবে মাছের পোনা উন্মুক্ত করে উপজেলা মৎস্য অফিস। কিন্তু এবছর এ নদীতে কিছু অসাধু মাছ শিকারী চায়না দুয়ারী জাল পেতে সকল মাছ আহরণ করছে। সকল ধরণের মাছ এ জালের কারণে মারা পড়ছে। চায়না দুয়ারী জালের কারণে জোয়ার ভাটার পানি প্রবাহ ব্যাপকভাবে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। নদীর মুখে পলি জমে ভরাট হওয়ার উপক্রম হয়েছে।

স্থানীয় ইউপি সদস্য কুমারেশ মন্ডল জানান, বারবার নিষেধ করার সর্তেও কিছু অসাধু ব্যক্তি চায়না দুয়ারী জাল পেতে মাছ শিকার করছে। চায়না দুয়ারী জাল বন্ধে প্রশাসনের অভিজানের দাবী জানান তিনি।
সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য বিনতা রানী বিশ্বাস জানান, এ নদীটি সরকার লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করে খনন করেছে এবং মৎস অফিস থেকে মাছের পোনা অবমুক্ত করেছে কিন্তু কিছু মানুষ সব মাছ মেরে খাচ্ছে চায়না দুয়ারী জাল পেতে। অচিরেই এটি বন্ধ হওয়া দরকার।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মমতাজ বেগম জানান, চায়না দুয়ারী জাল পেতে মাছ শিকারের বিষয়টি আমার জানা ছিলোনা। আমি উপজেলা মৎস্য অফিসকে বিষয়টি খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশনা দিচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন