আজ ৩রা আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৭ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম:
বিআরটিসি’র বিরুদ্ধে বিভিন্ন ফেসবুক আইডি থেকে অপতৎপরতাকারীদের বিরুদ্ধে সাইবার আদালতে মামলা। চেয়ারম্যান তাজুল ইসলামের নেতৃত্বে ঘুরে দাঁড়ালো বিআরটিসি। এডভোকেট সোহানা তাহমিনার মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা উচ্চ আদালতে। মুন্সিগঞ্জ-২ আসনে ট্রাক প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করবেন এড, সোহানা তাহমিনা। লৌহজংয়ে নানা আয়োজনে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান বিজয় দিবস পালিত। মুন্সীগঞ্জে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ও বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী পালিত হল মহান বিজয় দিবস। লৌহজং উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গণে বিজয় দিবস উপলক্ষে সপ্তাহব্যাপী মেলার আয়োজন। লৌহজংয়ে আদালতের রায় অমান্য করে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ, মানবেতর জীবন-যাপন ভুক্তভোগী পরিবার। লৌহজংয়ে ভাওতা দিয়ে লবণের বিনিময়ে সর্বস্ব লুট! লৌহজংয়ে ৫ জয়িতার সম্মাননা লাভ।
||
  • Update Time : সেপ্টেম্বর, ৮, ২০২৩, ৩:১৮ অপরাহ্ণ

ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে ইন্টার্নি করতে আশা ডিপ্লোমা ছাত্র আরিফ যখন ডাক্তার!

রিপোর্ট : ইমাম বিমানঃ ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট হিসেবে ডিপ্লোমা পড়ুয়া ইন্টার্নি করতে আশা আরিফুল রহমান আরিফ এখন সদর হাসপাতালে আউটডোরের চিকিৎসক হিসেবে রোগীরদের চিকিৎসাপত্র দিচ্ছে । গত ৭ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানাযায় হাসপাতালে ডিপ্লোমা পড়ুয়া

মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট হিসেবে ইন্টার্নি করতে আশা ছাত্র আরিফুল রহমান আরিফ রোগীদের চিকিৎসা পত্র দিচ্ছে।

সরোজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ঐ দিন দুপুর আনুমানিক ১২ টায় সদর হাসপাতালের আউটডোরে ১১০নম্বর কক্ষে বসে মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট হিসেবে ইন্টার্নি করতে আশা ডিপ্লোমা পড়ুয়া ছাত্র আরিফ রোগীদের চিকিৎসার জন্য ব‍্যাবস্থাপত্র দিচ্ছেন এবং ব্যবস্থাপত্রে তিনি নিজেই স্বাক্ষর করছেন। হাসপাতালে খবর নিয়ে জানাযায়, মেডিকেল এসিস্ট্যান্ট হিসেবে ডিপ্লোমা কোর্সে ঝালকাঠি মেডিকেলে ইন্টার্নি করতে আশা ছাত্র আরিফ ডাক্তার নন।

এ বিষয় আরিফের কাছে ডাক্তার না হয়েও কি করে আপনি রোগী দেখেন এবং রোগীর ব্যবস্থাপত্র দেন জানতে চাওয়া হলে আরিফুর রহমান আরিফ উত্তরে বলেন, আমি রোগী দেখতে পারবো ও ব্যবস্থাপত্র দিতে পারব। এছারাও আপনাকে কি ঝালকাঠি মেডিকেলে সরকারি ভাবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে বলে জানতে চাওয়া হলে এ বিষয়ে তিনি এরিয়ে যান, এবং বলেন আমাকে মেডিকেল অফিসার আরএমও দায়িত্ব দিয়েছে আমি রোগী দেখছি ও ব্যবস্থা পত্র দিচ্ছি।

এ বিষয়ে মেডিকেল অফিসার আরএমও ডাক্তার মোঃ মেহেদী হাসান সানির কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান, তাকে কোন রোগী দেখতে বলা হয়নি বা কোন ব্যবস্থা পত্র দিতে বলা হয়নি। এ রকম যদি কিছু করে থাকে আমরা খোঁজ নিয়ে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     আরও পড়ুন